বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২
নিউইয়র্ক -প্রথম আলো

ইরানের পরিস্থিতি গুরুতর নিহত তিন শতাধিক

জাতিসংঘের সতর্কতা 

আপডেট : ২৪ নভেম্বর ২০২২, ০৮:৪৫

ইরানে চলমান হিজাববিরোধী বিক্ষোভে দমনপীড়ন বিপজ্জনক পর্যায়ে চলে যাচ্ছে বলে মনে করছে জাতিসংঘ। সংস্থাটির মতে, ইরানের সরকারি বাহিনী বিক্ষোভ দমাতে ভারী অস্ত্র ও হেলিকপ্টার মোতায়েন করছে। নিরাপত্তা বাহিনীর নির্যাতনে এখন পর্যন্ত তিন শতাধিক বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছে। দ্য গার্ডিয়ান বলছে, এ পরিস্থিতিকে ‘গুরুতর’ বলে উল্লেখ করেছে জাতিসংঘ।

ঠিকভাবে হিজাব না পরায় ২২ বছর বয়সী কুর্দি তরুণী মাহসা আমিনিকে গত সেপ্টেম্বরে গ্রেপ্তার করে নৈতিকতাবিষয়ক পুলিশ। পুলিশ হেফাজতেই তাঁর মৃত্যু হয়। প্রতিবাদে দেশজুড়ে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। নিরাপত্তা বাহিনী শুরু থেকেই বিক্ষোভ দমাতে দমনপীড়ন চালিয়ে আসছে।

জাতিসংঘের মানবাধিকারবিষয়ক হাইকমিশনারের কার্যালয় বলছে, বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে ইরানে ৪০ শিশু নিহত হয়েছে।

জাতিসংঘের মানবাধিকারবিষয়ক হাইকমিশনার ভলকার তুর্ক গত মঙ্গলবার বলেন, ইরানে সপ্তাহান্তে বিক্ষোভকারীদের মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে। গত সপ্তাহেও দুই শিশু নিহত হয়েছে। নিরাপত্তা বাহিনীর কঠোর প্রতিক্রিয়ায় দেশটির গুরুতর পরিস্থিতি বোঝা যায়। ওএইচসিএইচআরের মুখপাত্র জেরেমি লরেন্স বলেন, কুর্দি শহরগুলো থেকে পাওয়া রিপোর্ট সবচেয়ে উদ্বেগজনক। এসব শহরে গত সপ্তাহে ৪০ বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছে।

জেরেমি লরেন্স আরও বলেন, ‘বিক্ষোভ দমনে অপ্রয়োজনীয় ও অসামঞ্জস্যপূর্ণ শক্তি ব্যবহার না করে জনগণের সমতা, মর্যাদা ও অধিকারের দাবি মেনে নিতে কর্তৃপক্ষকে আহ্বান জানাই।

ইরানের মানবাধিকার সংগঠন ইরান হিউম্যান রাইটস বলছে, শুধু গত সপ্তাহেই ৭২ বিক্ষোভকারী নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে নিহত হয়েছে। নিহত ব্যক্তিদের লাশ পরিবারের কাছে দিচ্ছে না নিরাপত্তা বাহিনী। দাফনও করা হয় না।

নিরাপত্তা বাহিনী দুই মাস ধরে চলা এ বিক্ষোভ থেকে কয়েক হাজার মানুষকে গ্রেপ্তার করেছে। এর মধ্যে ছয় ব্যক্তিকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছেন দেশটির আদালত।

কিছুদিনের মধ্যেই জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিল জেনেভায় ইরানের বিক্ষোভের ওপর আলোচনা করবে। এতে কূটনীতিকদের পাশাপাশি প্রত্যক্ষদর্শী ও ভুক্তভোগীরা অংশ নেবেন। এই বৈঠকে ইরানের বিক্ষোভকারীদের ওপর নিপীড়নের বিষয়ে তথ্য সংগ্রহে একটি মিশন গঠনের বিষয়ে আলোচনা হবে। জাতিসংঘের নথিপত্র অনুযায়ী, এ মিশনে প্রাপ্ত তথ্য ইরানের আদালত ও আন্তর্জাতিক আদালতে তুলে ধরা হবে।

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

একদশকের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ইমিগ্র্যান্টরা পেয়েছে আমেরিকায় নাগরিকত্ব

যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে বাংলাদেশি পণ্যের অধিকতর শুল্কমুক্ত প্রবেশাধিকারের আহ্বান

শিল্পকলা একাডেমি ইউএসএ’র প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন

ডা.এস এ মালেকের মৃত্যুতে যুক্তরাষ্ট্র নেতৃবৃন্দের শোক

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

৬ জানুয়ারির তদন্ত কমিটি ক্রিমিন্যাল চার্জের সুপারিশ

ট্রাম্প অর্গানাইজেশন করেছে কর জালিয়াতি

সিনেটে এখন সংখ্যাগরিষ্ঠ ডেমোক্র্যাটরা

পররাষ্ট্র বিষয়ে বঙ্গবন্ধুর উক্তি জাতিসংঘ দলিলে সন্নিবেশিত

 
 
সম্পাদক: ইব্রাহীম চৌধুরী | Editor: Ibrahim Chowdhury