বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২
নিউইয়র্ক -প্রথম আলো

২০২৪ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন

আলোচনায় মিশেল ওবামা

আপডেট : ২০ নভেম্বর ২০২২, ২২:৩৪

২০২৪ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রার্থিতা ঘোষণা করেছেন সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। দলের প্রাইমারি ও নিজের নানা ঝামেলা সামলে তিনি শেষ পর্যন্ত প্রার্থী থাকতে পারবেন কিনা, এ নিয়ে সংশয় রয়েছে। ডেমোক্র্যাট দলের প্রার্থী কে হচ্ছেন, এ নিয়েও এখন চলছে নানামুখী আলোচনা। প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন শেষ পর্যন্ত প্রার্থী না থাকলে ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসকে নিয়ে দলের মধ্যে তেমন উৎসাহ দেখা যাচ্ছে না। সাবেক ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামাকে নিয়ে ডেমোক্র্যাটদের মধ্যে আলোচনা হচ্ছে। তবে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন না বলেই তিনি জানিয়ে দিয়েছেন।

২০২০-র নির্বাচনে তিনি জো বাইডেনকে সমর্থন জানিয়েছিলেন তিনি। সম্প্রতি এই ইস্যুতে মুখ খুলেছেন মিশেল ওবামা।

গত সপ্তাহে একটি সাক্ষাৎকারে মিশেলকে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন নিয়ে প্রশ্ন করা হয়। সেখানেই তিনি বলেন, ‘প্রেসিডেন্ট ভোটে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করব না। সেখানে কে লড়বেন, সেটা এত তাড়াতাড়ি বলা সম্ভব নয়। তবে এটা ঠিক যে অনেক কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে প্রেসিডেন্ট বাইডেনকে। সাফল্যের সঙ্গেই বিভিন্ন সমস্যার মোকাবিলা করেছেন তিনি। পরবর্তী ভোটেও তিনি লড়বেন কিনা, সেটা একান্তই তার ব্যক্তিগত বিষয়। তাঁর স্ত্রী জিলসহ পরিবারের সকলের সঙ্গে কথা বলেই পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবেন তিনি।

প্রসঙ্গত, ২০০৯ থেকে দু’দফায় ডেমোক্র্যাটদের হয়ে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জেতেন বারাক ওবামা। তিনি প্রেসিডেন্ট থাকাকালীন ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে ছিলেন জো বাইডেন। ওবামার পর নির্বাচনে জয়ী হন রিপাবলিকান দলের নেতা ডোনাল্ড ট্রাম্প। তাকে হারিয়েই ফের ক্ষমতা দখল করে ডেমোক্র্যাটরা। প্রেসিডেন্ট হন জো বাইডেন। মধ্যবর্তী নির্বাচনে মার্কিন কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদে অল্প সংখ্যায় হলেও সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে রিপাবলিকান দল। নিজেকে আলোচনার অগ্রভাগে রাখার জন্যই প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রায় দু’বছর আগেই প্রতিদ্বন্দ্বিতার কথা ঘোষণা করে দিয়েছেন ট্রাম্প।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে এখনও পর্যন্ত কোনো নারী প্রেসিডেন্ট হতে পারেননি। ট্রাম্পের বিরুদ্ধে সমানে সমানে লড়াই করেছিলেন আরেক প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিন্টনের স্ত্রী হিলারি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত পরাজিত হন তিনি। হিলারির পর ফের সামনে এসেছে মিশেল ওবামার নাম।

প্রসঙ্গত, মার্কিন ইতিহাসে স্বামী-স্ত্রীর একসঙ্গে রাজনীতি করার নজির খুব বেশি নেই। এর আগে এই নজির দেখা গিয়েছে বিল ও হিলারি ক্লিন্টনের মধ্যে। প্রেসিডেন্ট হিসেবে অবসর নেয়ার পর সক্রিয় রাজনীতি থেকে নিজেকে দূরেই রেখেছেন বারাক ওবামা। তবে ডেমোক্র্যাট দলের মধ্যে ওবামা দম্পতির ব্যাপক প্রভাব রয়েছে। সাবেক ফার্স্ট লেডি হিসেবে মিশেল ওবামা আমেরিকার জনগণের কাছে জনপ্রিয় এক নাম।

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

একদশকের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ইমিগ্র্যান্টরা পেয়েছে আমেরিকায় নাগরিকত্ব

যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে বাংলাদেশি পণ্যের অধিকতর শুল্কমুক্ত প্রবেশাধিকারের আহ্বান

শিল্পকলা একাডেমি ইউএসএ’র প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন

ডা.এস এ মালেকের মৃত্যুতে যুক্তরাষ্ট্র নেতৃবৃন্দের শোক

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

৬ জানুয়ারির তদন্ত কমিটি ক্রিমিন্যাল চার্জের সুপারিশ

ট্রাম্প অর্গানাইজেশন করেছে কর জালিয়াতি

সিনেটে এখন সংখ্যাগরিষ্ঠ ডেমোক্র্যাটরা

পররাষ্ট্র বিষয়ে বঙ্গবন্ধুর উক্তি জাতিসংঘ দলিলে সন্নিবেশিত

 
 
সম্পাদক: ইব্রাহীম চৌধুরী | Editor: Ibrahim Chowdhury