সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২
নিউইয়র্ক -প্রথম আলো

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের নতুন কমিটির গুঞ্জন সাধারণ সম্পাদক পদে ৪ প্রার্থী

আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২:৫১

দীর্ঘ ১১ বছর ধরে এক কমিটিতে চলছে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ। ফলে পুরোনো নেতৃবৃন্দের একচ্ছত্র আধিপত্যে টিকে আছে অনেক দিন ধরে। যদিও বিভিন্নভাবে বিভক্তি হচ্ছে আওয়ামী লীগের এই শাখা। এমন পরিস্থিতিতে নতুন কমিটির দাবি বেশ পুরোনো। তবে সাধারণ সম্পাদক পদে চার প্রার্থীর প্রচারণা বেশ জমে উঠেছে।

জানা গেছে, প্রায় প্রতিবার জাতিসংঘের অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যুক্তরাষ্ট্র সফরে গেলে নতুন কমিটির গুঞ্জন ওঠে। এবারও তার ব্যতিক্রম হয়নি। জাতিসংঘের ৭৭তম অধিবেশনে যোগ দিতে বর্তমানে নিউইয়র্কে অবস্থান করছে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও সরকারপ্রধান শেখ হাসিনা। এ অবস্থায় আয়োজনেরও কমতি নেই

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের। আর শহরজুড়ে এখন আলোচনা চলছে নতুন কমিটি নিয়ে। তৎপরতা বেড়েছে নেতাকর্মীদেরও।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের বর্তমান কমিটির সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমানের বিরুদ্ধে অভিযোগের কোনো শেষ নেই। যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ব্যর্থ নেতৃত্বের কারণে বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সব শাখা-প্রশাখায় অসন্তোষ আর কোন্দল ডালপালা মেলে আছে। যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমানের ব্যর্থ নেতৃত্ব রাজনৈতিক অনভিজ্ঞতা সর্বোপরি আওয়ামী রাজনীতির পূর্ব অভিজ্ঞতা না থাকার ফলে সংগঠনের সর্বস্তরে ব্যাপক বিশৃঙ্খলা তৈরি হয়েছে। ফলে নতুন কমিটির জন্য তৃণমূল নেতা-কর্মীরা শেখ হাসিনার ঘোষণার দিকে তাকিয়ে আছে।

এদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে সংবর্ধনা, আনন্দ মিছিলের আয়োজন করেছে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। নেত্রীর আগমনে সরব হয়ে উঠেছে রাজনৈতিক অঙ্গন। সেই সাথে দাবি উঠছে নতুন কমিটিরও। নতুন কমিটির দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক কমিটি। যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ, নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগ, স্টেট আওয়ামী লীগ, যুক্তরাষ্ট্র

যুবলীগ, যুক্তরাষ্ট্র শ্রমিক লীগ, যুক্তরাষ্ট্র স্বেচ্ছাসেবক লীগ, যুক্তরাষ্ট্র ছাত্রলীগ ও মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের সংগঠন বাংলাদেশ ক্লাব যুক্তরাষ্ট্র, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটসহ অন্যান্য সামাজিক- সাংস্কৃতিক সংগঠনের বাংলাদেশি-আমেরিকানদের সমন্বয়ে গঠিত এই নাগরিক কমিটি।

সংবাদ সম্মেলনে নাগরিক কমিটির আহ্বায়ক হিন্দাল কাদির বাপ্পা ও সদস্যসচিব নুরুল আমিন বাবুর স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞাপ্তিতে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রার চিত্র তুলে ধরা হয়। সেইসাথে প্রধানমন্ত্রীর আগমনে সংগঠনটির বিভিন্ন কার্যাক্রম তুলে ধরা হয়। দীর্ঘদিন ধরে কমিটি না হওয়া যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের নতুন কমিটির দাবি জানিয়ে বলা হয়, যুক্তরাজ্যের নেতাকর্মীর সঙ্গে নেত্রীর যে সাক্ষাৎকারের চিত্র দেখেছি আমরা মনে প্রাণে আশাবাদী হয়েছিলাম ম্যানহাটন হোটেল লবিতে যুক্তরাজ্যের ন্যায় যুক্তরাষ্ট্রেও মাননীয় নেত্রী আমাদেরকে হাত উঁচিয়ে উৎসাহিত করবেন। যে কোনো কারণেই হোক নেতাকর্মীদের সে আশা পূর্ণ হয়নি।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আমরা আশাবাদী যুক্তরাজ্যের ন্যায় যুক্তরাষ্ট্রেও নেত্রীর সঙ্গে নেতাকর্মীদের সাক্ষাৎ হবে। আমরা মনে করি একটি নতুন কমিটিই পারে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগকে একটি শক্তিশালী ও গতিশীল সংগঠনে রূপান্তরিত করতে। সর্বপরি বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার কাছে আমাদের আকুল আবেদন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের একটি নতুন কমিটি গঠন করার জন্য সুদৃষ্টি কামনা করছি।

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ সূত্রে জানা গেছে, এবার জোর গুঞ্জন আছে নতুন কমিটি হওয়ার। আর তাই তোড়জোড় শুরু করেছেন নেতাকর্মীরা। নিজেদের মতো লবিংয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন পদপ্রত্যাশীরা। চলছে আড্ডা, আয়োজন ও সরব প্রচার প্রচারণাও। বিশেষ করে সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থীদের নড়াচড়া একটু বেশিই পরিলক্ষিত হচ্ছে। তবে থেমে নেই সভাপতি প্রার্থীরাও।

সাধারণ সম্পাদক পদে যাদের নাম শোনা যাচ্ছে:

নাগরিক কমিটির আহ্বায়ক সাবেক ছাত্র নেতা ও যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের অন্যতম কার্যকরী সদস্য হিন্দাল কাদির, সাবেক ছাত্রনেতা প্রকৌশলী এস এম আবুল হাসান, নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি জাকারিয়া চৌধুরী, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক

লীগের সভাপতি নুরুজ্জামান সরদার, আর দীর্ঘদিন ধরেই ভারমুক্ত হতে চাচ্ছেন বর্তমান কমিটির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আবদুস সামাদ আজাদ।

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের কমিটি পদপ্রার্থী একাধিক নেতাকর্মী বলেন, দীর্ঘদিন কমিটি না থাকায় সংগঠনের কার্যক্রম স্থবির হয়ে পড়েছে। এছাড়া কমিটিহীনতায় রাজনৈতিক গতিও হারিয়ে যাচ্ছে, তৈরি হচ্ছে না নতুন নেতৃত্ব। এমন পরিস্থিতিতে নতুন কমিটির জোর দাবি জানিয়েছেন তারা। সকলেরই প্রত্যাশা প্রধানমন্ত্রীর এই সফরে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ নতুন কমিটি পাক।

প্রায় একযুগ আগে নিউইয়র্ক সফরের সময় প্রধানমন্ত্রী ও দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনা যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের কমিটি গঠন করেন। সেই কমিটিতে ড. সিদ্দিকুর রহমান সভাপতি ও সাজ্জাদুর রহমান সাজ্জাদ সাধারণ সম্পাদক মনোনীত হন। পরবর্তীতে সাংগঠনিক অনিয়মের অভিযোগে সাজ্জাদ সাধারণ সম্পাদকের পদ হারান। সাংগঠনিক নিয়মে ড. সিদ্দিকুর রহমান নেতৃত্বাধীন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের বর্তমান কমিটির মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে প্রায় ১১ বছর আগেই। সাজ্জাদুর রহমান সাজ্জাদ পদচ্যুত হওয়ার পর

থেকেই যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করে চলেছেন যুগ্ম সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ।

প্রায় এক যুগ আগে গঠিত কমিটির দুই বছরের মধ্যেই অসাংগঠনিক কর্মকাণ্ডের দায়ে সাজ্জাদ সাসপেন্ড হন এবং প্রথম যুগ্ম সম্পাদক নিজাম চৌধুরীসহ সংগঠনের আরও ৮ নেতা অসাংগঠনিক কর্মকাণ্ডের দায়ে কারণদর্শানোর চিঠি পাওয়ায় ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পান যুগ্ম সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ।

এদিকে প্রধানমন্ত্রী নিউইয়র্ক সফররত অবস্থায় নতুন কমিটির জন্য নিজ নিজ লাইনে লবিং করে চলাচ্ছেন নেতাকর্মীরা। তবে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সম্মেলন হবে কি হবে না, বা নতুন কমিটি হবে কি হবে না তা সম্পূর্ণ নির্ভর করছে দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনার ওপর।

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

পেনসিলভেনিয়ায় বাংলাদেশ প্যারেড ও মেলা

প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে নিউইয়র্কে বাংলাদেশি সংখ্যালঘু নেতৃবৃন্দের মতবিনিময়

যুক্তরাষ্ট্র রোহিঙ্গাদের আরও ১৭০ মিলিয়ন ডলার দেবে: ব্লিঙ্কেন

রোহিঙ্গাদের দীর্ঘ অবস্থান বাংলাদেশের রাজনৈতিক স্থিতিশীলতায় মারাত্মক প্রভাব ফেলেছে

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

১৮ বছরে ৩৫ লাখ গৃহহীন লোকের থাকার ব্যবস্থা করেছি: প্রধানমন্ত্রী

স্পেন বিএনপি কর্মিসমাবেশ

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ বন্ধে জাতিসংঘে প্রধানমন্ত্রীর ছয় দফা প্রস্তাব

নাগরিক কমিটির নামে যুক্তরাষ্ট্র আ’লীগের কমিটি গঠনের আহ্বান

 
 
সম্পাদক: ইব্রাহীম চৌধুরী | Editor: Ibrahim Chowdhury