সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২
নিউইয়র্ক -প্রথম আলো

সাবওয়ের সব কামরায় বসছে ক্যামেরা

আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৪:৫০

নিউইয়র্কের ১০০ সাবওয়ের প্রতিটি কামরায় বসানো হচ্ছে ক্যামেরা। ২০ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার নিউইয়র্কের গভর্নর ক্যাথি হকুল এ কথা জানায়। এক ঘোষনায় তিনি জানান, চলতি গ্রীষ্মে পরীক্ষামূলকভাবে ১০০ সাবওয়ের যাত্রীবাহী প্রতিটি কামরায় দুটো ক্যামেরা সার্বক্ষনিক চালু থাকবে।

হকুল আশা করেন, ক্যামেরা বসানো হলে সাবওয়ে যাত্রা সবার জন্য আরও বেশি নিরাপদ হবে। স্কুলগামী ছাত্র-ছাত্রীদের আর ভয় পাওয়ার কোনো কারণ থাকবে না।

এমটিএ কর্তৃপক্ষের নেওয়া যাত্রীসেবা ও নিরাপদ ভ্রমণ প্রজেক্টে সাড়ে পাঁচ মিলিয়ন ডলার ব্যয় করা হবে কেন্দ্রীয় সরকারের দেয়া অনুদান থেকে। ক্যামেরা স্থাপনের ফলে প্রত্যেক যাত্রী ভাবতে পারেন সবার চলাফেরার ওপর কেউ না কেউ নজর রাখছে।

ফেডারেল সরকারের দেয়া অনুদানে পেন্সিল ইরেজার আকৃতির দুটো ক্যামেরা যার মোট সংখ্যা হবে ৫৪০০। বসানো হবে পাতাল রেলের প্রতিটি কামরায়। এছাড়া আরও ৩৮০০ ছোট আকারের ক্যামেরা বসানো হবে মোট ১৩০ স্টেশনে। নিউইয়র্ক সিটি ট্রানজিটের প্রেসিডেন্ট রিচার্ড ডেবের মতে, শক্তিশালী পর্যবেক্ষণ নেটওয়ার্ক বৃদ্ধির লক্ষ্য নিয়ে বসানো অত্যাধুনিক ক্যামেরা নিঃসন্দেহে যাত্রীদের মনোবল ও সাহস বৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখবে। খুশির খবর এই যে, সাবওয়েতে অপরাধ সংগঠিত হওয়ার সংখ্যা করোনা মহামারি সময়ের চেয়ে অনেক হ্রাস পেয়েছে।

পাতাল রেলের অপরাধ ২০১৯ সালের চেয়ে হ্রাস পেয়েছে প্রায় ৮.৬ শতাংশ। সংখ্যার হিসাবে ৩৩৯টি কম। এছাড়া সাবওয়ের কামরা ও স্টেশনের যত্রতত্র গৃহহীনদের চলাচল ট্রানজিট পুলিশের গৃহীত নানা উদ্যোগে আগের চেয়ে উল্লেখ্যযোগ্য পরিমাণ হ্রাস পেয়েছে।

গভর্নর হকুল আশা করেন, ২০২৫ সালের মধ্যে পুরো সাবওয়ে সিস্টেমে ক্যামেরা বসানোর কাজ শেষ হবে।

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

আবু জাফর রাজুর সঙ্গে মতবিনিময় সভা

পাপিয়া শারমিনকে স্বজন-শুভার্থীদের অভিনন্দন

ফ্রেন্ডস এন্ড ফ্যামিলি গার্ডেনের কার্যকরী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

বাংলাদেশে মার্কিন বিনিয়োগে প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

'এলামনি এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটিজ নাইট' ১ অক্টোবর

সিদ্ধান্ত গ্রহণে নারীদের যুক্ত করা গুরুত্বপূর্ণ: প্রধানমন্ত্রী

বাড়ির আঙ্গিনায় গাঁজা চাষের অনুমতি

চলচ্চিত্র নির্মাতা আমীরুল আরহামের সাথে একটি সন্ধ্যা

 
 
সম্পাদক: ইব্রাহীম চৌধুরী | Editor: Ibrahim Chowdhury